মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৫, ২০২২

এক হাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষে কেন্দ্রে কেন্দ্রে চলছে গণনা

অল্প সংঘাত-সহিংসতার মধ্যে দিয়ে তৃতীয় ধাপে দেশের এক হাজার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। আজ রোববার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ শেষে এখন চলছে গনণার কাজ। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোট গণনা ও ফলাফল প্রকাশ শেষে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা আনুষ্ঠানিকভাবে বেসরকারি ফলাফল ঘোষণা করবেন। এ ধাপে ভোটের আগেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মোট ৫৬৯ জন প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন ১০০ জন। আর ৩৩৭ জন সাধারণ সদস্য ও ১৩২ জন সংরক্ষিত মহিলা সদস্যও ভোট ছাড়াই জনপ্রতিনিধি হয়েছেন। নির্বাচন কমিশন বলছে, নির্বাচনি পরিবেশ নিয়ন্ত্রণে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির জন্য ভোটের পরেও তারা মাঠে থাকবে। আগের অভিজ্ঞতা থেকে দেওয়া হয়েছে কঠোর নির্দেশনা। ভোটকেন্দ্রে কেউ ঝামেলা করার চেষ্টা করলে তাদের গ্রেপ্তার করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এমন নির্দেশনা ছিল ইসির পক্ষ থেকে।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতদের বাদ দিলে তৃতীয় ধাপে ভোটের লড়াইয়ে আছেন ৫০ হাজার ১৪৬ জন প্রার্থী। তাদের মধ্যে চার হাজার ৪০৯ জন চেয়ারম্যান পদে, ১১ হাজার ১০৫ জন সংরক্ষিত সদস্য পদে এবং ৩৪ হাজার ৬৩২ জন সাধারণ সদস্য পদে লড়ছেন। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টিসহ বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে। তবে বিএনপি আনুষ্ঠানিকভাবে ভোটে না থাকলেও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দলের নেতাকর্মীরা অংশ নিচ্ছেন। এ ছাড়া অষ্টম ধাপের নয়টি পৌরসভাতেও ভোটগ্রহণ করা হয়েছে আজ রোববার। ইউপি ভোটকে কেন্দ্র করে বেশ কিছু নির্বাচনি এলাকায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে এবার। এর আগে দুই ধাপের ইউপি ভোটের আগে-পরে ও ভোটের দিন সহিংসতায় অর্ধশতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে। ফলে, এবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে নির্বাচন কমিশন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, প্রশাসন এবং নির্বাচন কর্মকর্তাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেছে।

তৃতীয় ধাপে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছিল এক হাজার সাতটি ইউপির। বিভিন্ন কারণে স্থগিত হয়েছে সাতটি ইউপির ভোট। আজ রোববার ভোট হয়েছে এক হাজার ইউনিয়ন পরিষদে। এতে মোট ভোটার দুই কোটি এক লাখ ৪৯ হাজার ২৭৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক কোটি ২১ লাখ পাঁচ হাজার ৪২৩ জন আর নারী ভোটার ৯৯ লাখ ৩২ হাজার ৫৩০ জন। এ ছাড়া হিজড়া ভোটার আছেন ১৯ জন। মোট ভোটকেন্দ্র ১০ হাজার ১৫৯টি। ভোটকক্ষ ৬১ হাজার ৮৩০টি। করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় প্রথম ধাপে এ বছরের ২১ জুন ও ২০ সেপ্টেম্বর এবং দ্বিতীয় ধাপে ১১ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনের ভোট হয়। এরই মধ্যে পাঁচ ধাপের ইউপি ভোটের তফসিল ঘোষণা করেছে কমিশন। প্রথম দুই ধাপে প্রায় এক হাজার ২০০ ইউপিতে ভোট শেষ হয়েছে। চতুর্থ ধাপে ২৬ ডিসেম্বর ৮৪০ ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে। পঞ্চম ধাপে ৭০৭ ইউপিতে ভোট হবে ৫ জানুয়ারি।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles