মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০২২

ঢাকার বাজারে সবজির দাম কমছে

ঢাকার বাজারে নতুন করে সবজির দাম কমে যাওয়ায় কিছুটা স্বস্তি এসেছে নগরবাসীর। অন্যদিকে ঢাকার বাজারে চাল, আটা, আটা, ভোজ্যতেল, চিনি ও মসুর ডালের দাম স্থিতিশীল রয়েছে। ঢাকার বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, গত সপ্তাহে বিভিন্ন সবজির দাম কমার প্রবণতা রয়েছে। পবিত্র রমজানের শুরুতে শসা, বেগুন, পয়েন্টেড গার্ড, ইয়ার্ড লং শিম, ওকড়া, লেডিস ফিঙ্গার ও স্নেক গার্ডসহ অধিকাংশ সবজির একক মূল্য ছিল গড়ে প্রতি কেজি ৮০ থেকে ৯০ টাকা, যা এখন হচ্ছে। প্রতি কেজি ৫০-৬০ টাকায় বিক্রি হয়। এছাড়া ঢাকার বাজারগুলোতে আলু, পেঁয়াজ ও টমেটো কম দামে বিক্রি হচ্ছে। পাইকারি পর্যায়ে পেঁয়াজ ও আলু এখন যথাক্রমে ১৭ টাকা ও ১৩ টাকা কেজি এবং খুচরা পর্যায়ে বিক্রি হচ্ছে ২৫-৩০ টাকায়। মিরপুর সেকশন-১ এর শাহ আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজ মার্কেটের পাইকারি বিক্রেতা এম জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা বলেন, “ইতিমধ্যেই ভারত থেকে বিপুল পরিমাণ পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে এবং স্থানীয় পেঁয়াজ সংগ্রহের ফলে পেঁয়াজের দাম মারাত্মকভাবে কমে গেছে।”

যেহেতু বাজারে প্রচুর পরিমাণে পেঁয়াজ মজুদ রয়েছে, তাই এই সময়ে পেঁয়াজের দাম বাড়ানোর কোনো সুযোগ নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকার প্রধান কেন্দ্র কাওরান বাজারের আরেক খুচরা বিক্রেতা আনোয়ার মোল্লা। মিরপুর শাহ আলী মার্কেটের সবজি বিক্রেতা লোকমান হোসেন জানান, কিছু নতুন সবজির দাম বেশি পাওয়া গেলেও অন্যান্য সবজির দাম সহনীয় সীমায় রয়েছে। শান্তিনগর বাজারের আরেক সবজি বিক্রেতা জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আগামী দিনে কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে অধিকাংশ সবজির দাম আরও কমবে।

এ ছাড়া চাল, আটা, মসুর ডাল, ভোজ্যতেল ও চিনির দাম স্থিতিশীল রয়েছে- মাঝারি মানের চাল ‘পাইজাম’ ও বিআর-২৮ এখন বিক্রি হচ্ছে ৪৬ থেকে ৪৮ টাকায় এবং ভালো মানের মিনিকেট ও নাজির বিক্রি হচ্ছে। প্রতি কেজি যথাক্রমে ৬৫ টাকা এবং ৭০ টাকা। কাওরান বাজারের চাল বিক্রেতা মিজান বলেন, “আগামী দিনগুলোতে বিশেষ করে বৈশাখ মাসের পর চালের দাম আরও কমবে কারণ বাজারে নতুন ফসল আসবে।” এক কেজি সাইজের দাম ১৪০০-১৫০০ টাকা হওয়ায় বাজারে সব ধরনের মাছের দাম বেশি পাওয়া গেছে। সরকারের নিষেধাজ্ঞা জারি করায় সব ধরনের মাছের দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে মাছ ব্যবসায়ীরা বলছেন। উৎপাদন বাড়াতে ১ মার্চ থেকে দুই মাসের জন্য ইলিশ মাছ ধরা, বিক্রি, মজুদ ও পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। তাছাড়া এখন প্রতি কেজি গরুর মাংস ৬৮০ টাকা, মাটন ৮৫০-৯৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে এবং দেশি মুরগির দাম বেড়েছে ৫৫০ টাকা কেজিতে।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
3,379FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles