সোমবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২১

তিস্তার পানি বিপৎসীমার ওপরে

কয়েক দিন ধরে দেশের নদ-নদীর পানি বাড়ছে। তিস্তার পানিও বিপত্সীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। এতে দেশের একাধিক জেলার নিম্নাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছে হাজার হাজার পরিবার।

এদিকে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে ফের লঘুচাপ সৃষ্টির আশঙ্কার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এর প্রভাবে আজ মঙ্গলবার রাত বা আগামীকাল বুধবার থেকে উপকূলীয় এলাকায় ভারি বৃষ্টির সম্ভবনা। একদিকে উজান থেকে পাহাড়ি ঢল আসছে, অন্যদিকে দেশে বৃষ্টিপাত বাড়লে নদ-নদীর পানি আরো বাড়ার সম্ভবনা আছে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

আবহাওয়াবিদ মো. আশরাফ উদ্দিন গতকাল বলেন, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় এবং তত্সংলগ্ন পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগরে একটি লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কাল দুপুরে বা এরপর এই লঘুচাপ সৃষ্টি হতে পারে। এটি মূলত ভারতের ওড়িশার দিকে যাচ্ছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র গতকাল জানায়, মেঘনা অববাহিকার নদীগুলো ছাড়া দেশের সব প্রধান নদ-নদীর পানি বাড়ছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

বন্যা পূর্বাভাস কেন্দ্র আরো বলছে, আগামী ৭২ ঘণ্টায় দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চল ও দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলীয় অঞ্চলে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে। এর ফলে দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় কক্সবাজার জেলা এবং দক্ষিণাঞ্চলীয় উপকূলের নদীগুলোর পানি দ্রুত বাড়তে পারে।

তিস্তায় টানা চার দিনে পানি বাড়া-কমায় ভোগান্তিতে পড়েছে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই, খগাখড়িবাড়ী, টেপাখড়িবাড়ী, খালিশা চাপানী, ঝুনাগাছ চাপানী ও গয়াবাড়ী ইউনিয়নের ১৫টি চর গ্রামের পাঁচ হাজার পরিবার।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles