বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের শ্রদ্ধা

ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ। বুধবার (১৭ মার্চ) সকাল সোয়া ১০টায় শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এরপর বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত বিভিন্ন কক্ষ ঘুরে দেখেন। পরে জাদুঘরে রাখা দর্শনার্থীদের বইয়ে স্বাক্ষর করেন মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি। জাদুঘরে তিনি প্রায় ২৫ মিনিট অবস্থান করেন। এ সময় বঙ্গবন্ধুর ছোট কন্যা শেখ রেহানা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল উপস্থিত ছিলেন। এর আগে সকাল পৌনে ১০টায় জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে সকাল সাড়ে ৮টায় হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ। বিমানবন্দরে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের নেতৃত্বে তাকে অভ্যর্থনা জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আব্দুল মোমেন, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। আরও পড়ুন: মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ঢাকায়  পরে দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজিয়ে গার্ড অব অনার দেওয়া হয় মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টকে। এ সময় তিনি গার্ড পরিদর্শন করেন। সেখান থেকে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের উদ্দেশে বিমানবন্দর ত্যাগ করে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতির গাড়িবহর। সাভারে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পর ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। বিকেলে জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেবেন ইব্রাহিম মোহমেদ সলিহ। রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও থাকবেন ওই অনুষ্ঠানে। বৃহস্পতিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে বৈঠকের পর তার আতিথেয়তায় বঙ্গভবনে একটি রাষ্ট্রীয় ভোজে যোগ দেবেন তিনি। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও উপভোগ করবেন। সফর শেষে ওই দিন রাতেই দেশে ফিরে যাবেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট। ১০ দিনের এ আয়োজনে ১৯ মার্চ শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে, ২২ মার্চ নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারী, ২৪ মার্চ ভুটানের প্রধানমন্ত্রী ডা. লোটে শেরিং এবং ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যোগ দেবেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
3,324FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles