বৃহস্পতিবার, মে ৬, ২০২১
সর্বশেষঃ
*চট্টগ্রামে করোনা শনাক্ত ১৫৫ জন, মৃত্যূ ৪ জন*আইনমন্ত্রী বলেন: খালেদা জিয়ার বিদেশ যেতে আবেদন দ্রুত নিষ্পত্তি হবে*করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন, সুশান্তের সহঅভিনেত্রী অভিলাষা পাতিল*লোকাল ট্রেন, রেস্তোরাঁ, শপিংমল,বার বন্ধ: পশ্চিমবঙ্গে*সংসদ ভবনে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগ, ২ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ*আয়ারল্যান্ড এক কোটি ডোজ ভ্যাকসিন কিনছে: ফাইজারের*দূরে থেকেই জানা যাবে শরীরের সব খবর: ‘ই-স্কিন’ এর মাধ্যমে*আইন মন্ত্রণালয়ে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য আবেদন*এবার বলিউডের অন্তরা মিত্রর সঙ্গে গাইলেন, রিজভীর*রিটকারীদের ৭ দিনের মধ্য নিয়োগের নির্দেশ, এনটিআরসিএর গণবিজ্ঞপ্তি স্থগিত

ফাতেমার আত্মহত্যার পেছনে অন্য রহস্য বেরিয়ে আসলো

নিছক আত্মহত্যা নয়, প্রেমে প্রতারিত হয়েই চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে মাদ্রাসা পড়ুয়া কিশোরী ফাতেমা আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছেন। পাড়া প্রতিবেশী সবাই জানতো কিশোরী ফাতেমা মায়ের কষ্ট দেখে আত্মহত্যা করেছেন।একটি চিরকুট(সুইসাইড নোট),তার মৃ্ত্যুর দুই দিন পর সেই ধারণা পাল্টে দিয়েছে। মায়ের উদ্দেশ্যে চিরকুটটি লেখা হলেও তাতে রাজু নামে এক যুবককে তার মৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন ফাতেমা।গত সোমবার রাতে হাজীগঞ্জের হাটিলা ইউনিয়নের গঙ্গানগর গ্রামের মৃত জাকির হোসেনের মেয়ে ফাতেমা বেগমের (১৫) গলায় ওড়না পেঁচানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনার দিন বাড়ির অন্যদের ফাঁকি দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে সুইসাইড করে ফাতেমা।মা ছালেহা বেগমের অভাবের সংসারে মেয়ে ফাতেমা কষ্ট নিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে তখন সবার ধারণা করেছিল।ঘটনার পর হাজীগঞ্জ থানা পুলিশ মৃতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন। পরে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। কিন্তু এই ঘটনার দুই দিন পর বুধবার দুপুরে ফাতেমার বড়ভাই মো. ফয়সাল একটি চিরকুট(সুইসাইড নোট) উদ্ধার করেন। ফাতেমার বইয়ের পাশে একটি নোটবুক খুঁজতে গিয়ে এই চিরকুটের সন্ধান পান তার বড়ভাই।তাতে মায়ের উদ্দেশ্যে ফাতেমা লিখেছেন, মা আপনি আমাকে ক্ষমা করবেন। আমাদেরকে নিয়ে অনেক কষ্ট করেছেন,আমি চলে গেলাম। তবে রাজুকে আমি ক্ষমা করবো না। কারণ, সে আমার সাথে প্রতারণা করেছে।ফাতেমার ভাই মো. ফয়সাল বলেন, তার বোনের সাথে মুঠোফোনে পরিচয় হয় আনিছুর রহমান রাজু নামে এক যুবকের।রাজুর বাড়ি পাশের শাহরাস্তি উপজেলার বাততলা গ্রামে। ফয়সালের ধারণা, রাজু তার বোনের সাথে প্রতারণা করেছেন। এতে বাধ্য হয়ে আত্মহত্যার পথ বেচে নিয়েছে ফাতেমা।ফয়সাল আরো বলেন, তার বাবার মৃত্যুর পর মা ছালেহা বেগম সংসারের হাল ধরেছেন। তার বোন এলাকার একটি মাদ্রাসায় দশম শ্রেণিতে পড়তো।এদিকে, ঘটনা সম্পর্কে হাজীগঞ্জ থানার ওসি হারুনুর রশিদ বলেন, পুলিশ পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন। তদন্ত করে যদি আত্মহত্যার প্ররোচিত করার অভিযোগ নিশ্চিত হওয়া যায়, তাহলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।অন্যদিকে, অভিযুক্ত রাজু ঘটনার পর থেকে এলাকা ছেড়ে গা ঢাকা দিয়েছেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

21,920FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles