সোমবার, আগস্ট ২, ২০২১

এই বসন্তে নিয়ে এলো বিভিন্ন অ্যাপল

২০ এপ্রিল হয়ে গেল অ্যাপলের বসন্তকালীন ইভেন্ট। সাধারণত এই ইভেন্টে তারা নতুন আইপ্যাড ও আইম্যাক উদ্বোধন করে থাকে, এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বরাবরের চেয়ে এবারের ইভেন্টের মূল আকর্ষণ হলো, অ্যাপল তার নিজস্ব প্রসেসর আরো বেশি পণ্যে ব্যবহার করা শুরু করেছে।


নতুন ‘আইপ্যাড প্রো ২০২১’-এ থাকছে অ্যাপলের নিজস্ব এম১ প্রসেসর। অর্থাৎ ম্যাকবুকের সঙ্গে আইপ্যাডের আর প্রসেসিং এবং আর্কিটেকচারগত পার্থক্য থাকছে না। আইপ্যাডে অবশ্য ম্যাকওএস নয়, আইপ্যাড ওএসই চলবে। এতে থাকবে ২৫৬ গিগাবাইট থেকে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ, ৫জি ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা এবং থান্ডারবোল্ট ৪ পোর্ট, যা ইউএসবি-সি কেবলই ব্যবহার করবে। আইপ্যাড প্রো ২০২১-এর ডিসপ্লে থাকছে আগের মতোই ১২.৯ ইঞ্চি এবং ১১ ইঞ্চি দুটি সংস্করণে, তবে এলসিডি বাদ দিয়ে ব্যবহার করা হচ্ছে মিনিএলইডি। এটা বলা যায় ওলেড এবং এলসিডির মাঝামাঝি, এতে দুটি প্রযুক্তির ভালো দিকগুলোই এতে পাওয়া যাবে। মূল্য শুরু ১১ ইঞ্চির জন্য ৭৯৯ ডলার থেকে আর ১২.৯ ইঞ্চির জন্য এক হাজার ৯৯ ডলার থেকে।


ম্যাকবুক, আইপ্যাডের পর এবার আইম্যাকেও অ্যাপল এম১ প্রসেসরের দেখা মিলল। ফলাফল নতুন আইম্যাক আগের চেয়ে এতটাই চিকন যে দেখে আইপ্যাডের মধ্যে স্ট্যান্ড লাগানো হয়েছে বলে মনে হবে। স্ট্যান্ডেও আনা হয়েছে নতুন ডিজাইন, সামনের বেজেল কমিয়ে আগের ২১ ইঞ্চি মডেলের সমান বডিতেই বসানো হয়েছে ২৪ ইঞ্চি ডিসপ্লে।নতুন আইম্যাকে হেডসেট ব্যবহার না করেই মিটিং করা যাবে স্বাচ্ছন্দ্যে। স্পিকার দেওয়া হয়েছে ৬টি, যেগুলো চালানোর জন্য হোমপডের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে।মূল্য শুরু এক হাজার ২৯৯ ডলার থেকে।


টিভির সঙ্গে ব্যবহার্য বক্স অ্যাপল টিভির নতুন সংস্করণেরও দেখা মিলেছে। এতে থাকছে এ১২ বায়োনিক প্রসেসর, ফলে এইচডিআর কনটেন্ট ৪কে রেজল্যুশনে দেখা যাবে। শক্তিশালী প্রসেসরের প্রয়োজন এমন সব অ্যাপ ও গেমও খেলা যাবে সহজেই। মূল্য শুরু ১৭৯ ডলার থেকে।


এবারের আনকোরা নতুন হার্ডওয়্যার এয়ারট্যাগ। যেকোনো জিনিস হারিয়ে গেলে খুঁজে পাওয়ার জন্য এই ছোট ডিভাইস সেটার সঙ্গে বেঁধে দিলেই হবে। ট্যাগটি দেখতে ধাতব ডিস্কের মতো। ভেতরে থাকছে একটি সিআর২০৩২ কয়েন ব্যাটারি, যার মাধ্যমে এটি চলবে টানা এক বছর। কিন্তু বাজারের আর দশটি ট্যাগের মতো এটি ব্লটুথ নয়, কাজ করে আল্ট্রাওয়াইড ব্যান্ড প্রযুক্তির মাধ্যমে।


পডকাস্ট আজকাল তুমুল জনপ্রিয়। যেকোনো প্রকার আলোচনা সম্প্রচার ও শোনার জন্য পডকাস্ট সিস্টেমের জুড়ি নেই। অ্যাপলের নিজস্ব পডকাস্ট অ্যাপ নতুন করে ডিজাইন করা হয়েছে। যুক্ত করা হয়েছে ইন-অ্যাপ পারচেজের মাধ্যমে পডকাস্টকারীদের স্পনসর করার সুবিধা।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles