শনিবার, জুন ১৯, ২০২১

বিচার চাইলেন সাহেব, হাসপাতালে ১৮ লাখের বিল

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ত্রস্ত গোটা ভারত। রাজ্যের পরিস্থিতিও ভয়াবহ। প্রতিদিন কাছের মানুষের অসুস্থতার খবর, মৃত্যুর খবর মনোবল ভেঙে দিচ্ছে সকলের। সরকারি হাসপাতালে বেড না পেয়ে বেসরকারি হাসপাতালে রোগীকে ভর্তি করলেই বিপদ।

বিলের অঙ্ক দেখে চোখ কপালে উঠছে পরিবারের। এই অভিযোগ প্রায় প্রতিদিনই আসছে। ঠিক এমন সময় নিজের অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন সাহেব চট্টোপাধ্যায়। 

মঙ্গলবার রাতে প্রয়াত হয়েছেন তাঁর এক কাকা অমিত কুমার বন্দ্যোপাধ্যায়। করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি, সরকারি হাসপাতালে বেড না পেয়ে মুকুন্দপুরে এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি, হাসপাতালের পক্ষ থেকে সোমবার জানানো হয় তিনি করোনা নেগেটিভ হয়েছেন। 

মঙ্গলবার রাতে মৃত্যু হয় তাঁর। আর তাঁর পরেই হাসপাতাল কতৃপক্ষ ১৮ লক্ষ রুপির বিল ধরায় পরিবারকে।

২৪ দিনের জন্য মোট বিল হয়-১৮ লক্ষ ২৯ হাজার ৬২২ রুপি। মজার বিষয় এরই মাঝে ৭৮ হাজার ৮৬৬ রুপি ছাড় দেয় হাসপাতাল। এই রুপি জমা দিয়ে রোগিকে ছাড়াতে হয় পরিবারকে। এত রুপি বিলের কার জানতে চাইলে তাঁরা একটি বিশাল বিস্তারিত রশিদ ধরিয়ে দেন, যার কোনও অর্থই হয় না, এমনটাই অভিযোগ পরিবারের।রাতে চেতলায় শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় তার। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই অভিযোগ তুলে ধরেন সাহেব চট্টোপাধ্যায়।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles