শনিবার, জুন ১৯, ২০২১

অর্থ পাচার রোধে ও রাজস্ব আহরণের লক্ষে ব্যাংক খাত সংস্কারের দাবি

জাতীয় সংসদে ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে উল্লেখিত রাজস্ব আহরণ কৌশলকে গতানুগতিক ও করোনা মহামারিজনিত দারিদ্র মোকাবেলায় অপর্যাপ্ত বলে অভিহিত করেছেন অধিকার ভিত্তিক নাগরিক সমাজ। তারা এই বাজেট সম্পদ পুনর্বণ্টনের ক্ষেত্রে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করার দিক নির্দেশনা নেই বলে অভিমত প্রকাশ করে দেশে থেকে অবৈধ অর্থ পাচার বন্ধ ও অভ্যন্তরীণ উৎস হতে রাজস্ব বৃদ্ধির লক্ষে ব্যাংক খাতের সামগ্রিক সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন। আজ শনিবার ইক্যুইটিবিডি’র উদ্যোগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তারা এই দাবি জানান। ইক্যুইটিবিডি’র প্রধান সঞ্চালক রেজাউল করিম চৌধুরীর সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন আহসানুল করিম। এতে বক্তৃতা করেন সুশাসনের প্রচারাভিযানের মো. আবদুল আউয়াল,  কোস্টাল লাইভলিহুড এন্ড এনভায়রনমেন্ট অ্যাকশন নেটওয়ার্কের হাসান মেহেদী এবং কোস্ট ট্রাস্টের  সৈয়দ আমিনুল হক ও মো. মোস্তফা কামাল আকন্দ। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সরকার এনবিআরের মাধ্যমে ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আহরণ ও গ্রামীণ অঞ্চলে কর এবং ভ্যাট জাল সম্প্রসারণের প্রস্তাব করেছে। কিন্তু প্রস্তাবে করোনার কারণে তিগ্রস্ত দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর ক্রমবর্ধমান ব্যয় বেড়ে যাওয়া ও আয় কমে যাওয়ার চাপ সামাল দেওয়ার কৌশল উল্লেখ নেই। বেকারত্ব বৃদ্ধির এই সময়ে সুষম সম্পদ পুনর্বণ্টণের দৃষ্টি থেকে এই বাজেট ন্যায় বিচার করতে পারছে না। সরকারের উচিৎ দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর জীবিকার চাপকে সহজ করে তুলতে অন্তত নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যগুলোর উপর থেকে ভ্যাটের বোঝা কমিয়ে আনা। সংবাদ সম্মেলনে আন্ডার ইনভয়েসিং ও অবৈধ অর্থ পাচাার রোধে অর্থিক খাতে সুশামসন নিশ্চিত করতে বিশেষ করে ব্যাংকিং খাতের সংস্কার, আয়কর সংগ্রহকে শক্তিশালী করতে আধুনিক প্রযুক্তিগুলির সাথে এনবিআরকে সমৃদ্ধ করা, গরিব ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির জন্য কমপে দশটি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যকে ভ্যাট অব্যাহতি ঘোষণা, কর্মহারাদের জন্য বিশেষ ভাতা বা সরাসরি আর্থিক সহযোগিতা, সরকারি অফিসগুলোতে দুর্নীতি প্রতিরোধে সরকারকে প্রয়োজনীয় পদপে গ্রহণ এবং সরকারি ক্রয় পদ্ধতিতে বিশেষ নজরদারি সুপারিশ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, কালো টাকা সাদা করার ক্ষেত্রে বারবার বিভ্রান্তি তৈরি করা হচ্ছে। নতুন বাজেটে অবৈধ অর্থ পাচার রোধে সরকারের উদ্যোগের বিষয়ে কোন নেই। অর্থ পাচার বন্ধ করা গেলে তা  হতে পারে রাজস্ব আদায়ের অন্যতম উৎস্য। 

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

22,042FansLike
0FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -

Latest Articles